• জাতীয়: করোনা টিকা উৎপাদনে আন্তর্জাতিক সহায়তা চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী *** ১৫ জেলায় ঝড়ো হাওয়াসহ ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা *** সারাবিশ্ব: ফিলিপাইনের সাবেক প্রেসিডেন্টের মৃত্যু *** মৃত্যু ছাড়াল ৩৯ লাখ, আক্রান্ত ১৮ কোটি *** লাহোরে আবাসিক এলাকায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত ৪, শিশুসহ আহত ২০ *** সারাদেশ: সাতক্ষীরায় করোনাভাইরাসে ১১ জনের মৃত্যু *** রামেক করোনা ইউনিটে মৃত্যুর রেকর্ড, ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জন *** খেলাধুলা: পিছিয়ে পড়েও কলম্বিয়াকে উড়িয়ে দিল ব্রাজিল *** ঘোষণা: সিটিজেন জার্নালিজমকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে নিউজফ্ল্যাশ৭১; জেলা/উপজেলা/ পৌরসভা থেকে সংবাদ পাঠাতে আগ্রহীরা শিগগিরই সিভি (CV) পাঠান এই মেইলে- [email protected] *** সবধরনের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন: https://www.newsflash71.com *** সংবাদ ও ভিডিও পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিন: fb/newsflash71bd *** সব ধরনের ভিডিও চিত্র দেখতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল ভিজিট করুন: youtube.com/newsflash71 ***


ঘুরে আসি

খেজুর রসের দেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারী ২০২১ ১৭:৫৭; আপডেট: ৬ জানুয়ারী ২০২১ ১৯:০৪

গ্রাম বাংলায় শীতের অন্যতম আকর্ষন খেজুর রস

গরম কাপড় থাকলে শীতের মত মনোরম ঋতু আর নেই। বিভিন্ন লেখনিতে একথাই জানিয়ে গেছেন দেশের লেখক, কবি-সাহিত্যিক। ষড়ঋতুর বাংলাদেশে শীত আসে পৌষ-মাঘ মাসে। কনকনে ঠান্ডায় শীতের সকালে খেজুর রস খুবই মজা।

খেজুর রস-গুড়ের নানা কারবার উপভোগ করতে চাইলে, যেতে হবে বৃহত্তর যশোর-কুষ্টিয়া এলাকায়। এখানকার বেশিরভাগ বাড়ীতে চলে খেজুরের রস দিয়ে গুড় বানানোর আয়োজন। বাড়ীর পুরুষদের দায়িত্ব খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ। সাত সকালে কনকনে ঠান্ডায় রস নিয়ে এলে ব্যস্ত হয়ে পড়েন বাড়ীর মহিলারাও।

খেজুরের রস জ্বাল দিয়ে গুড় বানাতে সময় লাগে মাত্র কয়েক ঘন্টা। যে পাত্রে খেজুর রস জ্বাল দেয়া হয়, তার নাম তাফাল। জ্বাল দেয়া ঘন রস থেকে গুড় তৈরি হয় এক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে। স্থানীয়রা একে বলেন বীজ মারা। জ্বাল দিয়ে রস ঘন হলে চুলা থেকে নামানো হয় তাফাল। এরপর তাফাল কাত করে গরম ঘন রস এক পাশে আনা হয়। আর তাফালে লেগে থাকা আঠালো রস ঘঁষা হয় খেজুরের কাঠি বা কাঠের কোন হাতল দিয়ে। কিছুক্ষণ ঘঁষলে তাফালের লেগে থাকা রস শুকিয়ে হলদে রঙের গুড়োর মত হয়। তা মেশানোো হয় ঘন রসের দ্রবনের মধ্যে।

দুপুরের আগেই শেষ হয় গুড় তৈরির প্রক্রিয়া। প্রতিদিন খেজুরের রস, দানা গুড়, পাটালি ও ঝোলা গুড়ের স্বাদ উপভোগ করেন স্থানীয়রা।

শুধু সকালে নয়, চাইলে দুপুরের পর বা পড়ন্ত বিকেলেও খাওয়া যায় খেজুরের রস। ডিসেম্বর, জানুয়ারি, ফ্রেবুয়ারি এবং মার্চের মাঝামাঝি সময় পর্য চলে খেজুর রসের কারবার। এসময় খেজুর রস-গুড়ের উৎসব লেগে থাকে বেশিরভাগ বাড়ীতেই।

এনএফ৭১/জুআসা/২০২১

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

যোগাযোগ: বাড়ি-৫৪৮, রোড-১৩, বারিধারা ডিওএইচএস, ঢাকা-১২০৬

ফোন : ০২ ৮৪১৮০৭৬

ইমেইল : [email protected]

Developed with by dataenvelope
Top