• জাতীয়: করোনাভাইরাসে দেশে আরও ২১ জনের মৃত্যু *** চার লাখ শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন দেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় *** নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটনে প্রধানমন্ত্রী *** ঘূর্ণিঝড় গুলাব; রোববার রাতে উপকূল অতিক্রম *** সোনারগাঁ জাদুঘরের ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন *** সারাদেশ: সৈয়দপুরে মুজিব ছায়ায় জমি দান যুবলীগ নেতার *** মাদকমুক্ত হাকিমপুর গড়তে সহযোগিতা চাইলেন নতুন ওসি *** রামগতিতে পালিত হলো বৃক্ষরোপন কর্মসূচী *** মুকসুদপুরে বৃক্ষরোপন ও গাছের চারা বিতরণ কুষ্টিয়ায় *** করোনা রোগীর সংখ্যা ১৮ হাজার ৪২১ জন *** রামেকে করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ৪ জনের মৃত্যু  সারাবিশ্ব: যুক্তরাষ্ট্রে ট্রেন দুর্ঘটনা, ৩ জন নিহত *** বিশ্বে করোনায় একদিনে আরও ৬ হাজার মানুষের মৃত্যু *** জার্মানিতে জাতীয় নির্বাচন আজ *** অভিযুক্ত অপহরণকারীর দেহ ঝুলালো তালেবান *** খেলাধুলা: অক্টোবরে শ্রীলংকা সফরে যাচ্ছে টাইগার যুবারা *** পিএসজির টানা ৮ জয়  *** ঘোষণা: সিটিজেন জার্নালিজমকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে নিউজফ্ল্যাশ৭১; জেলা/উপজেলা/ পৌরসভা থেকে সংবাদ পাঠাতে আগ্রহীরা শিগগিরই সিভি (CV) পাঠান এই মেইলে- [email protected] *** সব ধরনের সংবাদ জানতে ভিজিট করুন: https://www.newsflash71.com *** সংবাদ ও ভিডিও পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিন: fb/newsflash71bd *** সব ধরনের ভিডিও চিত্র দেখতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল ভিজিট করুন: youtube.com/newsflash71 ***


নিয়মিত হাঁটার উপকারিতা

নিউজফ্ল্যাশ৭১ ডেস্ক | প্রকাশিত: ৩ আগস্ট ২০২১ ১৯:২৬; আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২১:১৮

নিয়মিত হাঁটার উপকারিতা

এতো এতো ব্যায়াম আর শরীরচর্চার মধ্যে সব থেকে সহজ আর কার্যকরি হল হাঁটা। মোটামোটি সব রোগের সমাধান এই হাঁটা। নিয়মিত হাঁটলে তার ফল পাও্যা যাবে হাতেনাতে।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে খাদ্যাভাস যেমন গুরুত্বপূর্ণ সেইভাব নিয়মিত শরীরচর্চা করাও গুরুত্বপূর্ণ। অতিরিক্ত রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনার জন্যে অন্তত ৩০ মিনিট করে হাঁটার অভ্যাস গড়ে তোলা খুব প্রয়োজন।

উচ্চ রক্তচাপের পাশাপাশি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এই প্রতিদিন হাঁটার অভ্যাস। হাঁটলে শরীরের পেশিতে ইনসুলিনের কার্যকারিতা বাড়ে। ফলে রক্তের গ্লুকোজ কমে। ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসলে হ্রাস পায় হার্ট এ্যাটাক ও স্ট্রোক এর ঝুঁকিও।

স্তন ক্যান্সারসহ অন্যান্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও হ্রাস পায়। হাঁটার সময় হৃৎস্পন্দন আর শ্বাসপ্রশ্বাসের গতি বাড়ে। ফলে হৃদযন্ত্র ও ফুসফুসে রক্ত সরবরাহ বাড়ে। এতে গুরুত্বপূর্ণ এই দুই অঙ্গের কর্মক্ষমতা বাড়ে। এমনকি হাঁটার অভ্যাস থাকলে মুক্তি পাওয়া যায় মানসিক চাপ থেকেও।

যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে অর্থাৎ যাদের খুব সহজে গভীর ঘুম হয় না; তাদের জন্যে নিয়মিত হাঁটার অভ্যাস বেশ ফলদায়ক। নির্দিষ্ট সময় ধরে হাঁটার ফলে শরীর থেকে ঘাম নির্গত হয় এবং শরীরে ক্লান্তিবোধ হয়। এর ফলে শরীরে তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ার তাড়না থাকে।

নিয়মিত হাঁটলে মস্তিষ্কে এনডর্ফিন, ডোপামিন, সেরোটোনিনের মতো ভালো অনুভূতি তৈরির রাসায়নিক নিঃসরণ বাড়ে। ফলে বিষণ্নতা কমে, মন-মেজাজ ভালো থাকে, রাতে ঘুম হয় চমৎকার। তাই নিয়মিত হাঁটার ফলে শরীরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে।

শরীরের হাড়কে মজবুত ও পেশিকে দৃঢ় করে গড়ে তুলতে সুষম খাদ্যের পাশাপাশি সবারই ছোটবেলা থেকে হাঁটাহাঁটি, দৌড়ানো, সাঁতার, সাইক্লিং ইত্যাদি নিয়মিত অনুশীলন করা উচিত। এতে করে শরীরের প্রতিটি অঙ্গ ছোটবেলা থেকেই বেশ দৃঢ়ভাবে গড়ে ওঠে।

তবে বয়সের সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য ব্যায়ামগুলো করা অনেক সময় সম্ভব হয়ে ওঠে না। সেক্ষেত্রে সবার হাঁটাহাঁটির অভ্যাসটি নিয়ম করে পালন করা উচিত।

হাঁটার উপকার পেতে সপ্তাহে অন্তত পাঁচ দিন হাঁটুন। প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট করে সপ্তাহে ১৫০ মিনিট হাঁটতে হবে। একবারে ৩০ মিনিট হাঁটতে না পারলে ১০ মিনিট করে দিনে তিনবার হাঁটা যেতে পারে। হাঁটার জন্য সকাল বা বিকেলের একটি নির্দিষ্ট সময় বেছে নিন।

এনএফ৭১/এনজেএ/২০২১




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর

যোগাযোগ: বাড়ি-৫৪৮, রোড-১৩, বারিধারা ডিওএইচএস, ঢাকা-১২০৬

ফোন : ০২ ৮৪১৮০৭৬

ইমেইল : [email protected]

Developed with by dataenvelope
Top