রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

রেললাইনে ‘বাংলা ব্লকেড’, ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বন্ধ

রায়হান রাজীব | প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৪, ১৪:৫৮

ছবি: সংগৃহীত

কোটা সংস্কারের দাবিতে দেশজুড়ে বাংলা ব্লকেড কর্মসূচি চলছে। সেই আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় বুধবার (১০ জুলাই) রাজধানীর কাওরানবাজারে রেললাইন অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা। এতে ঢাকার সঙ্গে বন্ধ হয়ে গেছে সারাদেশের রেল যোগাযোগ। একই সঙ্গে রিকশা, ভ্যান, মোটরসাইকেলসহ সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

এদিন দুপুর ১টার দিকে কয়েকশ আন্দোলনকারী অবস্থান নেন কারওয়ানবাজার সংলগ্ন রেললাইনের ওপরে। এসময় তারা রেললাইনের দুই পাশে কাঠের স্লিপার দিয়ে রেললাইনের ওপরে বসে পড়েন, কেউ শুয়েও পড়েন। এতে বেলা ১১টার পর কমলাপুরের সঙ্গে পশ্চিম ও পূর্বাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

এর আগে, সকালে রাজধানীর শাহবাগ, সায়েন্সল্যাব, বাংলামোটর, ফার্মগেট, আগারগাঁও ও মহাখালীসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ব্লক করে দেয় শিক্ষার্থীরা। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কারওয়ান বাজার রেলগেট ও মহাখালী রেল ক্রসিংয়ে কাঠের গুড়ি ফেলে আন্দোলন করতে দেখা যায়। এতে ঢাকার সঙ্গে সাড়া দেশে রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। 

 

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ রেললাইন অবরুদ্ধ করা হয়েছে। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। পর্যাক্রমে আন্দোলন আরও বেগবান হবে বলেও জানান তারা। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ বিভাগের শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান তিশা বলেন, আমাদের যৌক্তিক আন্দোলন মানতে হবে। একটি স্বাধীন দেশে সরকারি চাকরিতে এতো বৈষম্য থাকবে কেন? সংবিধান অনুযায়ী পিছিয়ে পড়া মানুষদের এগিয়ে নিতে কোটা পদ্ধতি। অথচ সরকার গোটা জাতিকে পিছিয়ে ফেলছে।

দুপুরে কারওয়ান বাজার ও মহাখালী রেলগেইট এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা রেললাইনে ওপরে কাঠের বিভিন্ন গুড়ি ও বাঁশ ফেলে অবরোধ করছে। এছাড়াও রেল ক্রসিংয়ের ব্যারিকেডের গেইট ফেলে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। এতে রেলগেইট দিয়ে কোনও যানবাহনও চলাচল করতে পারছে না।  তবে অ্যাম্বুলেন্স ও রোগী বহনকারী গাড়িগুলোকে চলাচলের সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। 

এদিন রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ছাড়াও ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ও দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কগুলো কার্যত অচল হয়ে পড়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।



বিষয়:


পাঠকের মন্তব্য

মন্তব্য পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Top